দুপুর ১:২৩ | সোমবার | ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং | ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কাশিয়ানীতে ভাটা মালিক গ্রাস করছে ফসলি জমি

নিজস্ব প্রতিবেদক:- গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে ইটভাটা মালিক গ্রাস করছেন ফসলি জমি। জোর করে ইটভাটা মালিক ভাটার আশপাশের ফসালি জমিতে ইট ফেলে প্রায় ১৫ কৃষকের ২০ একর জমি জবর দখলে নিয়েছেন। সেখানে তিনি ভাটার কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। জমির মালিকরা তাদের জমিতে চাষাবাদ করতে পারছেনা। এতে তাদের জীবন জীবিকা বন্ধ হতে চলেছে। ভাটার ধোঁয়ায় ফসলের ক্ষতি হচ্ছে। ব্যাহত হচ্ছে ফসল উৎপাদন।

 

জমি দখলে বাধা দেয়ায় ভাটা মালিকের পেটোয়া
বাহিনী কৃষক পরিবারের উপর হামলা করে মহিলা সহ ৫ জনকে আহত করেছে। ওই কৃষকের বাড়িতে হামলা করে বাড়িঘর ভাঙচুর ও মালামল লুটপাট করা হয়েছে।

 

এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক তপু সিকদার কাশিয়ানী
থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

 

ঘটনাটি ঘটেছে কাশিয়ানী উপজেলার সাজাইল
ইউনিয়নের মাজড়া গ্রামে।

 

সন্ত্রাসী হামলায় আহত মাজড়া গ্রামের কৃষক তপু
সিকদার (৪৫) আভিযোগ করে বলেন, এলাকার প্রভাবশালী মনসুর মোল্লার ছেলে আব্দুর রহমান মোল্লা ৩ বছর আগে স্থানীয় জুঁঁই মোল্লা, বাবু ফকিরসহ কয়েক জন কৃষকের কাছ থেকে ২ একর জমি লিজ নিয়ে নিয়ম বহির্ভূতভাবে ফসলি জমিতে স্বল্প পরিসরে মাছুম ব্রিকস নামে একটি ইটভাটা স্থাপন করেন। সেখানে আব্দুর রহমানের নিজের কোন জমি নেই। এরপর তার ললুপ দৃষ্টি পড়ে আশপাশের ফসলি জমির ওপর। ভাটার ইট ফেলে ভাটার আশপাশের কৃষকের ৩ ফসলি জমিগুলোর জোর করে জবর দখলে নেয়। এভাবে ক্ষমতার দাপটে আব্দুর রহমান ১৫ কৃষকের প্রায় ২০ একর জমি অবৈধ দখলে রেখে ভাটার কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। এসব জমিতে আমাদের চাষাবাদ বন্ধ হয়ে গেছে। জীবন জীবিকা চলছেনা। ভাটার ধোঁয়ায় গোটা এলাকার ফসলের ক্ষতি হচ্ছে। ফসল উৎপাদন কমে গেছে।

 

ওই কৃষক আরো বলেন, ভাটা মালিকের দখলে আমার তিন খন্ডে ২ একর ৮ শতাংশ জমি রয়েছে। এছাড়া কৃষক সবুর মোল্লার ২ একর, তোয়াব মিয়ার ১ একর, বাহারুল মোল্লার ২২ শতাংশ, পলাশ মিয়ার ৩০ শতাংশ সহ ১৫ জন কৃষকের ২০ একর ৩ ফসলি জমি রয়েছে। গত সোমবার ভাটা মালিকের জবর দখলে থাকা আমার ২ একর ৮ শতাংশ জমি আবাদ করতে গেলে ভাটা-মালিকের পেটোয়া বাহিনী আমাদের বাধা দেয় ও মাপিট করে। এরপর তারা দু’দফায় আমাদের বাড়িতে হামলা চালায়। বাড়িঘর ভাঙচুর করে ও ঘরের মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যায়। এতে আমি ও আমার মা হেলেনা বেগমসহ পরিবারের ৫ সদস্য আহত হয়েছি। খবর পেয়ে কাশিয়ানীর এসিল্যান্ড ও পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। আমি এ ঘটনায় কাশিয়ানী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।

 

এ বিষয়ে কাশিয়ানীর এসিল্যান্ড আতিকুল ইসলাম
বলেছেন, ভাটা-মালিকের কাছে জমির কাগজপত্র চাওয়া হয়েছে। অবৈধভাবে তিনি কারও জমি দখল করতে পারবেন না। এমনকি ইট-ভাটাও করতে পারবেন না। আগামী ১১ নভেম্বর পর্যন্ত ওই ভাটার লাইসেন্সের মেয়াদ রয়েছে। কাগজপত্রে কোন সমস্যা থাকলে তার ভাটার লাইসেন্স নবায়ন আটকে যাবে।

 

কাশিয়ানীর ইউএনও রথীন্দ্রনাথ রায় বলেছেন, ইটভাটার মালিক যেই-ই হোন, আইনের কোনও ব্যাত্যয় হবেনা। এলাকায় যাতে কোন উত্তেজনাকর পরিস্থির উদ্ভব না হয়, সেজন্য সংশ্লিষ্ট ইউপি-চেয়ারম্যানকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

 

কাশিয়ানী থানার ওসি মো. আজিজুর রহমান বলেছেন, বিষয়টি নিয়ে অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি দেখছেন। তারপরও কোন অপরাধ সংগঠিত হলে আমরা অবশ্যই ব্যবস্থা নেব।

 

কাশিয়ানী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাজাইল ইউপি-চেয়ারম্যান কাজী জাহাঙ্গীর আলম বলেন, উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতায় বিষয়টি সমাধানের উদ্যোগ নিয়েছি। এখানে বেআইনীভাবে, অবৈধভাবে বা নিয়ম-বহির্ভূতভাবে কেউ কিছু করতে পারবে না।

 

এ বিষয়ে মাছুম ব্রিকসের মালিক আব্দুর রহমান
মোল্লা বলেন, আমাকে তপু সিকদার অপমান করেছে। আমার লোকজন এটি জানতে পেরে তাদের বাড়ি-ঘরে হামলা করে। তবে লুটপাটের অভিযোগ সত্য নয়। ভাটার পাশে ফাঁকা জমিতে কিছু ইট ফেলে রাখার কথা স্বীকার করে তিনি বলেন, ইউপি-চেয়ারম্যান বিষয়টি সালিশ করে দেবেন।

Views All Time
Views All Time
65
Views Today
Views Today
1

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন আজ

» কাশিয়ানীতে সোনালী অতীত ক্লাবের ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত

» শহীদ রোজী জামাল সংসদের আলোচনা সভা

» কাশিয়ানীতে ইজিবাইক চাপায় শিশুর মৃত্যু

» কাশিয়ানীতে বালু ব্যবসায়ীকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

» দুই থানা পুলিশের টানাটানি! মধুমতি নদীতে ভাসমান লাশ

» কাশিয়ানীতে ৩ লাখ ৮০ হাজার টাকার কারেন্ট জাল ধ্বংস, জরিমানা

» কাশিয়ানীতে বাল্যবিয়ের দায়ে বরকে জরিমানা

» কাশিয়ানীতে ইয়াবাসহ গ্রেফতার ৩

» কাশিয়ানীতে দেড় লাখ টাকার অবৈধ কারেন্ট জাল আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস

» অবশেষে পাওয়া গেল শিশুপুত্র আনাস’র মরদেহ

» কাশিয়ানীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

» কাশিয়ানীতে যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

» কাশিয়ানীর কালনায় মধুমতি নদীতে ট্রলার থেকে পড়ে পিতাপুত্র নিখোঁজ

» ফেসবুক গ্রুপ “প্রিয় গোপালগঞ্জ” বানভাসিদের ত্রাণ দিল

পরিচালনা পর্ষদ

প্রধান উপদেষ্টা : মোঃ গোলাম মোস্তফা

প্রধান সম্পাদক : নিজামুল আলম মোরাদ

সম্পাদক & প্রকাশক : পরশ উজির

পরিচালনা পর্ষদ

অঞ্চলিক অফিস ও সম্পাদকীয় কার্যালয় : প্রেস ক্লাব,
কাশিয়ানী, গোপালগঞ্জ, ঢাকা, বাংলাদেশ
নিউজ রুম : kashiani09@gmail.com 01911079050

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited

,

কাশিয়ানীতে ভাটা মালিক গ্রাস করছে ফসলি জমি

নিজস্ব প্রতিবেদক:- গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে ইটভাটা মালিক গ্রাস করছেন ফসলি জমি। জোর করে ইটভাটা মালিক ভাটার আশপাশের ফসালি জমিতে ইট ফেলে প্রায় ১৫ কৃষকের ২০ একর জমি জবর দখলে নিয়েছেন। সেখানে তিনি ভাটার কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। জমির মালিকরা তাদের জমিতে চাষাবাদ করতে পারছেনা। এতে তাদের জীবন জীবিকা বন্ধ হতে চলেছে। ভাটার ধোঁয়ায় ফসলের ক্ষতি হচ্ছে। ব্যাহত হচ্ছে ফসল উৎপাদন।

 

জমি দখলে বাধা দেয়ায় ভাটা মালিকের পেটোয়া
বাহিনী কৃষক পরিবারের উপর হামলা করে মহিলা সহ ৫ জনকে আহত করেছে। ওই কৃষকের বাড়িতে হামলা করে বাড়িঘর ভাঙচুর ও মালামল লুটপাট করা হয়েছে।

 

এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক তপু সিকদার কাশিয়ানী
থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

 

ঘটনাটি ঘটেছে কাশিয়ানী উপজেলার সাজাইল
ইউনিয়নের মাজড়া গ্রামে।

 

সন্ত্রাসী হামলায় আহত মাজড়া গ্রামের কৃষক তপু
সিকদার (৪৫) আভিযোগ করে বলেন, এলাকার প্রভাবশালী মনসুর মোল্লার ছেলে আব্দুর রহমান মোল্লা ৩ বছর আগে স্থানীয় জুঁঁই মোল্লা, বাবু ফকিরসহ কয়েক জন কৃষকের কাছ থেকে ২ একর জমি লিজ নিয়ে নিয়ম বহির্ভূতভাবে ফসলি জমিতে স্বল্প পরিসরে মাছুম ব্রিকস নামে একটি ইটভাটা স্থাপন করেন। সেখানে আব্দুর রহমানের নিজের কোন জমি নেই। এরপর তার ললুপ দৃষ্টি পড়ে আশপাশের ফসলি জমির ওপর। ভাটার ইট ফেলে ভাটার আশপাশের কৃষকের ৩ ফসলি জমিগুলোর জোর করে জবর দখলে নেয়। এভাবে ক্ষমতার দাপটে আব্দুর রহমান ১৫ কৃষকের প্রায় ২০ একর জমি অবৈধ দখলে রেখে ভাটার কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। এসব জমিতে আমাদের চাষাবাদ বন্ধ হয়ে গেছে। জীবন জীবিকা চলছেনা। ভাটার ধোঁয়ায় গোটা এলাকার ফসলের ক্ষতি হচ্ছে। ফসল উৎপাদন কমে গেছে।

 

ওই কৃষক আরো বলেন, ভাটা মালিকের দখলে আমার তিন খন্ডে ২ একর ৮ শতাংশ জমি রয়েছে। এছাড়া কৃষক সবুর মোল্লার ২ একর, তোয়াব মিয়ার ১ একর, বাহারুল মোল্লার ২২ শতাংশ, পলাশ মিয়ার ৩০ শতাংশ সহ ১৫ জন কৃষকের ২০ একর ৩ ফসলি জমি রয়েছে। গত সোমবার ভাটা মালিকের জবর দখলে থাকা আমার ২ একর ৮ শতাংশ জমি আবাদ করতে গেলে ভাটা-মালিকের পেটোয়া বাহিনী আমাদের বাধা দেয় ও মাপিট করে। এরপর তারা দু’দফায় আমাদের বাড়িতে হামলা চালায়। বাড়িঘর ভাঙচুর করে ও ঘরের মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যায়। এতে আমি ও আমার মা হেলেনা বেগমসহ পরিবারের ৫ সদস্য আহত হয়েছি। খবর পেয়ে কাশিয়ানীর এসিল্যান্ড ও পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। আমি এ ঘটনায় কাশিয়ানী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।

 

এ বিষয়ে কাশিয়ানীর এসিল্যান্ড আতিকুল ইসলাম
বলেছেন, ভাটা-মালিকের কাছে জমির কাগজপত্র চাওয়া হয়েছে। অবৈধভাবে তিনি কারও জমি দখল করতে পারবেন না। এমনকি ইট-ভাটাও করতে পারবেন না। আগামী ১১ নভেম্বর পর্যন্ত ওই ভাটার লাইসেন্সের মেয়াদ রয়েছে। কাগজপত্রে কোন সমস্যা থাকলে তার ভাটার লাইসেন্স নবায়ন আটকে যাবে।

 

কাশিয়ানীর ইউএনও রথীন্দ্রনাথ রায় বলেছেন, ইটভাটার মালিক যেই-ই হোন, আইনের কোনও ব্যাত্যয় হবেনা। এলাকায় যাতে কোন উত্তেজনাকর পরিস্থির উদ্ভব না হয়, সেজন্য সংশ্লিষ্ট ইউপি-চেয়ারম্যানকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

 

কাশিয়ানী থানার ওসি মো. আজিজুর রহমান বলেছেন, বিষয়টি নিয়ে অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি দেখছেন। তারপরও কোন অপরাধ সংগঠিত হলে আমরা অবশ্যই ব্যবস্থা নেব।

 

কাশিয়ানী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাজাইল ইউপি-চেয়ারম্যান কাজী জাহাঙ্গীর আলম বলেন, উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতায় বিষয়টি সমাধানের উদ্যোগ নিয়েছি। এখানে বেআইনীভাবে, অবৈধভাবে বা নিয়ম-বহির্ভূতভাবে কেউ কিছু করতে পারবে না।

 

এ বিষয়ে মাছুম ব্রিকসের মালিক আব্দুর রহমান
মোল্লা বলেন, আমাকে তপু সিকদার অপমান করেছে। আমার লোকজন এটি জানতে পেরে তাদের বাড়ি-ঘরে হামলা করে। তবে লুটপাটের অভিযোগ সত্য নয়। ভাটার পাশে ফাঁকা জমিতে কিছু ইট ফেলে রাখার কথা স্বীকার করে তিনি বলেন, ইউপি-চেয়ারম্যান বিষয়টি সালিশ করে দেবেন।

Views All Time
Views All Time
65
Views Today
Views Today
1

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



পরিচালনা পর্ষদ

প্রধান উপদেষ্টা : মোঃ গোলাম মোস্তফা

প্রধান সম্পাদক : নিজামুল আলম মোরাদ

সম্পাদক & প্রকাশক : পরশ উজির

পরিচালনা পর্ষদ

অঞ্চলিক অফিস ও সম্পাদকীয় কার্যালয় : প্রেস ক্লাব,
কাশিয়ানী, গোপালগঞ্জ, ঢাকা, বাংলাদেশ
নিউজ রুম : kashiani09@gmail.com 01911079050

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited