সকাল ১১:৫৪ | শনিবার | ১৫ই আগস্ট, ২০২০ ইং | ৩১শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

এগিয়ে চলছে কালনা সেতুর নির্মাণ কাজ

গোপালগঞ্জে মধুমতি নদীর ওপর কালনা সেতুর নির্মাণ চলছে। এ সেতু নির্মাণের মধ্য দিয়ে গোপালগঞ্জ, নড়াইল, খুলনা ও যশোর অঞ্চলের মানুষের দীর্ঘ দিনের স্বপ্ন পূরণ হবে।

৯৬০ কোটি টাকা ব্যয়ে জাইকার সহযোগিতায় ও দেশীয় অর্থে তিনটি কোম্পানি যৌথভাবে এ সেতু নির্মাণ করছে। গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে মধুমতি নদীরে ওপর ৬৯০ মিটার দৈর্ঘ্যের ৬ লেনের এ সেতুটি ২০২১ সালে সেপ্টেম্বরে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৫ সালের ২৪ জানুয়ারি সেতুটির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। আর ২০১৮ সালের ৩০ অক্টোবর নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন।

 

সেতুটি নির্মাণ হলে গোপালগঞ্জ, নড়াইল, খুলনা ও যশোর অঞ্চলের মানুষের দীর্ঘ বছরের স্বপ্ন পূরণ হবে। সেইসঙ্গে এই রাস্তায় চলাচলকারী লাখ লাখ যাত্রী সাধারণের ঢাকার সঙ্গে যোগাযোগ সহজ হবে। ঘণ্টার পর ঘণ্টা ফেরি ঘাটে বসে থাকতে হবে না।

 

শুধু তাই নয়, কালনা সেতু নির্মাণ হয়ে গেলে বেনাপোল-ঢাকা মহাসড়কটি দিয়ে বেনাপোল স্থল বন্দরের সঙ্গে ঢাকার দূরত্ব কমে আসবে। বেনাপোল স্থল বন্দর থেকে আমদানি-রফতানি পণ্য সরাসরি পদ্মাসেতু হয়ে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পণ্য পরিবহনে সুবিধা পাবেন ব্যবসায়ীরা। যাত্রী সাধারণও কোন ভোগান্তি ছাড়া যাতায়াত করতে পারবেন।

 

আর বেশিদিন যাত্রী সাধারণকে ভোগান্তি পোহাতে হবে না। খুব তাড়াতাড়ি তারা এই সেতু পার হয়ে এবং পদ্মা সেতু দিয়ে রাজধানীতে অল্প সময়ের মধ্যে যেতে পারবেন। যাতে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সেতুটির নির্মাণ কাজ শেষ হয় তার দাবি জানিয়েছেন এই সড়কে চলাচলকারীরা।

 

কালনা সেতু নির্মাণকারী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের অন্যতম প্রতিষ্ঠান আব্দুল মোনেম কনস্ট্রাকশনের হাইওয়ে প্রকৌশলী মোহাম্মদ জোনায়েদ রাহবার নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে তাদের কাজ শেষ করবেন বলে জানান।

তিনি জানান, সেতুটি নির্মাণ হলে এ অঞ্চলের মানুষের জীবনযাত্রার মান বেড়ে যাবে।

কালনা সেতুটির নির্মাণ কাজ শেষ হলে পাল্টে যাবে এ অঞ্চলের মানুষের জীবনমান। সেইসঙ্গে বেনাপোল-ঢাকা মহাসড়ক পথে অল্প খরচে পণ্য পরিবহনে সুযোগ পাবে আমদানি-রফতানিকারকরা।

Views All Time
Views All Time
717
Views Today
Views Today
1

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» ফেসবুকে সমালোচনার ঝড় বিয়েতে ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে আনন্দ প্রকাশ

» কাশিয়ানীতে নিখোঁজের দু’দিন পর বিল থেকে কলেজ ছাত্রের লাশ উদ্ধার

» বন্যার্তদের মাঝে রান্নাকরা খাবার বিতরণ করলেন পারুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মকিম

» কাশিয়ানীতে অজ্ঞাত ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার

» কাশিয়ানীতে লক্ষাধিক টাকার অবৈধ কারেন্ট জাল আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস

» টেস্ট

» কাশিয়ানীতে সেবার মাঝে চিকিৎসক-নার্সদের ঈদ আনন্দ

» ঈদের দিন কাশিয়ানীতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার আত্মহত্যা

» কাশিয়ানীতে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

» মোল্লা আবু কাওছারের ক্যাসিনোকান্ডে সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়নি-সিআইডি

» কাশিয়ানীতে প্রাইভেট কার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একই পরিবারের ৩ জন নিহত, আহত ২

» “মানবিক চেয়ারম্যান ও সূর্য শিশির ফাউন্ডেশন”

» গোপালগঞ্জে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ পরিদর্শন করলেন প্রধানমন্ত্রীর এপিএস-২ গাজি লিকু

» কাশিয়ানীতে উদ্বোধন হল পাবলিক লাইব্রেরি ‘বাতিঘর’

» কালনা ফেরিঘাট যেন মরণ ফাঁদ; গ্যাংওয়ে তলিয়ে পারাপারে দুর্ভোগ

পরিচালনা পর্ষদ

প্রধান উপদেষ্টা : মোঃ গোলাম মোস্তফা

প্রধান সম্পাদক : নিজামুল আলম মোরাদ

সম্পাদক & প্রকাশক : পরশ উজির

পরিচালনা পর্ষদ

অঞ্চলিক অফিস ও সম্পাদকীয় কার্যালয় : প্রেস ক্লাব,
কাশিয়ানী, গোপালগঞ্জ, ঢাকা, বাংলাদেশ
নিউজ রুম : kashiani09@gmail.com 01911079050

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited

,

এগিয়ে চলছে কালনা সেতুর নির্মাণ কাজ

গোপালগঞ্জে মধুমতি নদীর ওপর কালনা সেতুর নির্মাণ চলছে। এ সেতু নির্মাণের মধ্য দিয়ে গোপালগঞ্জ, নড়াইল, খুলনা ও যশোর অঞ্চলের মানুষের দীর্ঘ দিনের স্বপ্ন পূরণ হবে।

৯৬০ কোটি টাকা ব্যয়ে জাইকার সহযোগিতায় ও দেশীয় অর্থে তিনটি কোম্পানি যৌথভাবে এ সেতু নির্মাণ করছে। গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে মধুমতি নদীরে ওপর ৬৯০ মিটার দৈর্ঘ্যের ৬ লেনের এ সেতুটি ২০২১ সালে সেপ্টেম্বরে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৫ সালের ২৪ জানুয়ারি সেতুটির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। আর ২০১৮ সালের ৩০ অক্টোবর নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন।

 

সেতুটি নির্মাণ হলে গোপালগঞ্জ, নড়াইল, খুলনা ও যশোর অঞ্চলের মানুষের দীর্ঘ বছরের স্বপ্ন পূরণ হবে। সেইসঙ্গে এই রাস্তায় চলাচলকারী লাখ লাখ যাত্রী সাধারণের ঢাকার সঙ্গে যোগাযোগ সহজ হবে। ঘণ্টার পর ঘণ্টা ফেরি ঘাটে বসে থাকতে হবে না।

 

শুধু তাই নয়, কালনা সেতু নির্মাণ হয়ে গেলে বেনাপোল-ঢাকা মহাসড়কটি দিয়ে বেনাপোল স্থল বন্দরের সঙ্গে ঢাকার দূরত্ব কমে আসবে। বেনাপোল স্থল বন্দর থেকে আমদানি-রফতানি পণ্য সরাসরি পদ্মাসেতু হয়ে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পণ্য পরিবহনে সুবিধা পাবেন ব্যবসায়ীরা। যাত্রী সাধারণও কোন ভোগান্তি ছাড়া যাতায়াত করতে পারবেন।

 

আর বেশিদিন যাত্রী সাধারণকে ভোগান্তি পোহাতে হবে না। খুব তাড়াতাড়ি তারা এই সেতু পার হয়ে এবং পদ্মা সেতু দিয়ে রাজধানীতে অল্প সময়ের মধ্যে যেতে পারবেন। যাতে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সেতুটির নির্মাণ কাজ শেষ হয় তার দাবি জানিয়েছেন এই সড়কে চলাচলকারীরা।

 

কালনা সেতু নির্মাণকারী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের অন্যতম প্রতিষ্ঠান আব্দুল মোনেম কনস্ট্রাকশনের হাইওয়ে প্রকৌশলী মোহাম্মদ জোনায়েদ রাহবার নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে তাদের কাজ শেষ করবেন বলে জানান।

তিনি জানান, সেতুটি নির্মাণ হলে এ অঞ্চলের মানুষের জীবনযাত্রার মান বেড়ে যাবে।

কালনা সেতুটির নির্মাণ কাজ শেষ হলে পাল্টে যাবে এ অঞ্চলের মানুষের জীবনমান। সেইসঙ্গে বেনাপোল-ঢাকা মহাসড়ক পথে অল্প খরচে পণ্য পরিবহনে সুযোগ পাবে আমদানি-রফতানিকারকরা।

Views All Time
Views All Time
717
Views Today
Views Today
1

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



পরিচালনা পর্ষদ

প্রধান উপদেষ্টা : মোঃ গোলাম মোস্তফা

প্রধান সম্পাদক : নিজামুল আলম মোরাদ

সম্পাদক & প্রকাশক : পরশ উজির

পরিচালনা পর্ষদ

অঞ্চলিক অফিস ও সম্পাদকীয় কার্যালয় : প্রেস ক্লাব,
কাশিয়ানী, গোপালগঞ্জ, ঢাকা, বাংলাদেশ
নিউজ রুম : kashiani09@gmail.com 01911079050

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited